উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা

নার্সদের কর্মবিরতি আন্দোলনের জেরে বন্ধ রায়গঞ্জ মেডিকেলের চিকিৎসা পরিষেবা। চরম ভোগান্তি রোগী এবং আত্মীয় পরিজনদের

রায়গঞ্জ, ২৮ আগস্টঃ  নার্সদের কর্মবিরতি আন্দোলনের জেরে বন্ধ হয়ে পড়েছে চিকিৎসা পরিষেবা।  চিকিৎসা না পেয়ে নাজেহাল অবস্থা রোগীর এবং রোগীর আত্মীয়দের। দিনভর এমনই বেহাল স্বাস্থ্য পরিষেবার ছবি ফুটে উঠল রায়গঞ্জ গভর্নমেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। নার্সদের সমস্যাকে মান্যতা দিলেও তাদের আন্দোলনকে অগনতান্ত্রিক বলে অভিহিত করেছেন রায়গঞ্জ গভর্নমেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভাইস প্রিন্সিপাল। এদিকে সমস্যা সমাধান না হওয়ায় পরবর্তীতেও নার্সরা আন্দোলন চালিয়ে যাবে বলে সূত্রের খবর। এই অবস্থায় হাজার হাজার রোগীর স্বাস্থ্য পরিষেবা বেহাল হয়ে পড়েছে রায়গঞ্জ গভর্নমেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

সোমবার রায়গঞ্জ গভর্নমেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এক রোগীনির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে দুজন নার্সকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছিল মৃতার পরিবারের বিরুদ্ধে। এই ঘটনা নিয়ে উত্তেজনাও তৈরি হয়েছিল হাসপাতাল চত্বরে। পরে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। নার্সদের উপর হামলার ঘটনার প্রতিবাদে এবং তাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার দাবিতে ওই দিনই হাসপাতালের ভাইস প্রিন্সিপালের ঘরের সামনে ধর্না এবং অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বসেছিলেন রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নার্সেরা। সেই আন্দোলনের রেশ টেনে কর্তব্যরত অবস্থায় তাদের নিরাপত্তার দাবিতে আজ (বুধবার) সকাল থেকেই কর্মবিরতিতে গিয়ে ভাইস প্রিন্সিপালকে তাঁর চেম্বারের ভেতরে আটকে রাখেন নার্সেরা।

নার্সদের এই আন্দোলনের জেরে ন্যূনতম স্বাস্থ্য পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীরা। হাসপাতালের কোনও ওয়ার্ডেই আজ দেখা মেলেনি কোনও নার্সকে। ফলে মুমূর্ষু রোগী থেকে সাধারণ, সবধরনের রোগীরাই আজ দিনভর চিকিৎসা পরিষেবা থেকে বঞ্চিতই থেকে গেলেন। ওষুধ, ইঞ্জেকশন থেকে স্যালাইন দেওয়া কোনও কিছুই পেলেন না রোগীরা। এতে সমস্যায় পড়েছেন রোগী ও তাদের আত্মীয় পরিজনেরা। যদিও এব্যাপারে মুখ খুলতে নারাজ আন্দোলনরত নার্সেরা।রায়গঞ্জ গভর্নমেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভাইস প্রিন্সিপাল সুজিত কুমার মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, হাসপাতাল রোগীদের পরিষেবা দেওয়ার জায়গা। এখানে এভাবে ট্রেড ইউনিয়নের মতো আন্দোলন করা যায়না৷ পরিষেবা স্বাভাবিক রেখে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে নার্সেরা তাদের দাবি দাওয়া রাখতে পারতেন বলে মত প্রকাশ করেছেন ভাইস প্রিন্সিপাল সুজিত কুমার। তাকে ঘরে আটকে রেখে এই ধরনের আন্দোলন সমর্থনযোগ্য নয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *