জেলা পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান

বাবা করোনায় আক্রান্ত, তাঁর চিকিৎসা খরচ জোগাড় করতে না পেরে আত্মঘাতী ছেলে।

নিজেস্ব প্রতিনিধি, দুর্গাপুর

করোনা আবহে মর্মান্তিক চিত্র, বাবার চিকিৎসা খরচ জোগাড় করতে না পেরে আত্মঘাতী ছেলে। মৃতের নাম আকাশ কর, বয়স ২১ বছর। রবিবার সকালে স্থানীয় এক কুয়ো থেকেই উদ্ধার করা হয় আকাশকে। এরপর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনাটি ঘটেছে দুর্গাপুরের কুড়ুরিয়া ডাঙ্গার মিলনপল্লী এলাকায়। জানা যায়, আকাশের বাবা নিমাই করের শরীরে থাবা বসিয়েছে মারণ এই ভাইরাস এবং বেশ কয়েকদিন ধরেই তিনি দুর্গাপুরের শোভাপুরে বেসরকারি এক হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। সেখানে চিকিৎসা বাবদ মোটা অঙ্কের টাকা বিল হয়। তবে আকাশ কতটা টাকা জোগাড় করতে পেরেছিল, তা তারা জানেন না। সম্ভবত টাকা জোগাড় করতে না পারার কারণেই সে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছিল বলে খবর স্থানীয় সূত্রে। আর এই কারণেই সে বাড়ির সামনে থাকা ঐ কুয়োয় ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হয় বলে দাবী স্থানীয়দের। স্থানীয় বাসিন্দা রিপন সাহা জানান, সকাল বেলায় স্থানীয় ঐ কুয়োর কাছে জমায়েত দেখে তিনি ছুটে যান। সেখানেই জানা যায়, সকাল থেকে আকাশকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এরপর পাশের বাড়ির এক মহিলার কথায় কুয়োতে উঁকি দিয়ে দেখতেই আকাশের দেহ ভেসে উঠতে দেখেন সকলে। তড়িঘড়ি তাকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। তিনি জানান, আকাশ ঐ পরিবারের একমাত্র সন্তান। তারা বাড়ির লোকেরা সকলেই করোনায় আক্রান্ত বলে একটি হতাশা তাঁদের মধ্যে কাজ করছিল বলেই জানান তিনি। তার ওপর চিকিৎসার খরচ জোগাড় করা। সব মিলিয়েই হয়তো আকাশ আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছে বলে রিপন বাবু জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *