জেলা পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান

কারখানা বন্ধের নোটিস, সমস্যায় কর্মীরা।

নিজেস্ব প্রতিনিধি, রানীগঞ্জ

কার্যত লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়েছে রাজ্য সরকার। তারই মধ্যেই বৃহস্পতিবার রানীগঞ্জের বল্লভপুর পেপার ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেড তাদের উত্পাদন বন্ধ করে দিয়েছে। এদিন বিকেলে কাগজ মিল কর্তৃপক্ষ উত্পাদন বন্ধের জন্য নোটিশ জারি করে।  এই খবর ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে শ্রমিকরা জীবিকা নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন। সিআইটিইউ কর্তৃক অনুমোদিত বেঙ্গল পেপার মিল শ্রমিক ইউনিয়নের তরফ থেকে পেপার মিল কর্তৃপক্ষের কাছে একটি স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়। ট্রেড ইউনিয়নের মূল দাবি ছিল শ্রমিকদের পুরো মজুরি দিতে হবে। এ ব্যাপারে প্রাক্তন সাংসদ বংশগোপাল চৌধুরী শ্রমমন্ত্রীর কাছে একটি আবেদন জানিয়েছেন বলে জানান তিনি। সিটু শ্রমিক ইউনিয়ন কারখানায় তালাবন্দির সময় পেপার মিলের শ্রমিকদের পুরো বেতনের দাবি তোলেন। এই প্রসঙ্গে বংশেগোপাল চৌধুরী বলেন, রাজ্য সরকার এই ঘোষণা করেছিলেন যে লকডাউনের কারণে বন্ধ কারখানার শ্রমিকদের পুরো মজুরি দিতে হবে কারখানা কতৃপক্ষকে। যতক্ষণ লকডাউন থাকবে ততক্ষণ শ্রমিকদের পুরো বেতন দিতে হবে। প্রাক্তন সাংসদ কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের স্বার্থ উপেক্ষা করার অভিযোগ আনেন। তিনি রাজ্য সরকারকেও এই বিষয়ে অসফল বলে মন্তব্য করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *