জেলা পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান

পড়ছে না কলে জল, সরপী নতুনপল্লীর বাসিন্দাদের ট্যাংকের জলই ভরসা।

সংবাদদাতা, লাউদোহা

তিন মাসের বেশি সময় ধরে কলে পড়ছে না জল। স্থানীয় পঞ্চায়েত-কে জানিও হয়নি সুরাহা। পাইপ লাইনের কাজ চলছে শীঘ্রই সমস্যা মিটবে বলে আশ্বাস দিয়ে ক্ষান্ত পঞ্চায়েত প্রধান। ঘটনাটি ইচ্ছাপুর পঞ্চায়েতের সরপী মোড়ের নতুনপল্লী এলাকার। স্থানীয়রা জানান, ইছাপুর পঞ্চায়েতের সরপী মোড় নতুনপল্লী এলাকায় রয়েছে কমবেশি ৭০ থেকে ৮০টি পরিবার।  জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের পাইপ লাইনের মাধ্যমে এলাকায় জল সরবরাহ হয়। পাড়ার বিভিন্ন জায়গায় বেশ কয়েকটি কলের ট্যাপ রয়েছে। এছাড়া ভোটের আগে বাড়ি বাড়ি পাইপ লাইনের মাধ্যমে কলের সংযোগ দেওয়া হয়। কিন্তু, সেই জলের কল থেকে মাস তিনেকের বেশি সময় ধরে জল পড়ছে না। পানীয় জল না পাওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন বাসিন্দারা। ট্যাঙ্কারের মাধ্যমে এলাকায় জলের ব্যবস্থা করেছে পঞ্চায়েত। কিন্তু, তা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম বলে জানালেন স্থানীয়রা। ফলে বহু পরিবারকেই জল কিনে খেতে হচ্ছে। আবার যারা জল কিনে খেতে অসমর্থ তাদের জল সংগ্রহ করতে দূরবর্তী এলাকায় যেতে হচ্ছে। সরপী নতুনপল্লীর বাসিন্দা বেলা হালদার, জবারানী সেন-রা জানান, আগে পাড়ার কল গুলিতে জল পড়ত। কিন্তু, ভোটের আগে বাড়ি বাড়ি জলের সংযোগ দেওয়ার পর পাড়ার কলে জল আসা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। বিষয়টি পঞ্চায়েতকে বেশ কয়েকবার জানানো হলেও কাজ হয়নি তাতে। ক্ষুব্দ বাসিন্দারা মে মাসের ৪ তারিখ সরপী মোড়ে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায়। তারপরে পঞ্চায়েত ট্যাংকারে করে পানীয় জলের ব্যবস্থা করে। ইছাপুর পঞ্চায়েতের প্রধান উজ্জল মন্ডল জানান, বাড়ি বাড়ি পাইপ লাইনের সংযোগ দেওয়ার ফলে বিপত্তি হয়েছে। বিষয়টি জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের আধিকারিকদের জানান হয়েছে। কলে কেন জল আসছে না বিষয়টি তারা দেখছেন। খুব শীঘ্রই সমস্যা মিটে যাবে বলে আশ্বাস দেন উজ্জ্বল বাবু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *